ঢাকা ০২:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চলমান রাজনৈতিক বৈরিতায় এগিয়ে যাওয়া কঠিন : সিইসি

  • ডিপি ডেস্ক
  • আপডেট সময় ১১:৩৩:৩১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪
  • 5

দেশে প্রকট রাজনৈতিক বৈরিতা বিরাজমান– এ মন্তব্য করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, এই পরিস্থিতিতে সামনে এগিয়ে যাওয়া কঠিন। সব ধরনের তিক্ততা পরিহার করে রাজনৈতিক দলগুলোকে আলোচনার টেবিলে বসতে ফের তাগিদ দেন তিনি।
গতকাল রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন সিইসি। এর আগে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামানের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠক করে।
জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রচলিত আসনভিত্তিক প্রতিনিধির পরিবর্তে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব, নির্বাচনী হলফনামার তথ্য প্রকাশ, যাচাই-বাছাই করা এবং মিথ্যা তথ্য দিলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে ইসির সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিনিধি দল।

বৈঠক শেষে নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে বিরোধের স্থায়ী সমাধানের জন্য চলমান রাজনৈতিক সংকট থেকে উত্তরণের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন সিইসি। তিনি জানান, রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে এখনও কোনো আলোচনার সম্ভাবনা তিনি দেখছেন না। তাদের মধ্যে বৈরিতা অত্যন্ত প্রকট। এ পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটাতে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের ভূমিকা পালন করতে হবে বলে মনে করেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরেই নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে পুরোপুরি দুই মেরুতে অবস্থান করছে দুই প্রধান রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। নবম সংসদে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর আদালত তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থাকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেন। এরপর তিনটি সংসদ নির্বাচন হলেও রাজনৈতিক সংকট আগের মতোই রয়ে গেছে। সর্বশেষ হাবিবুল আউয়াল কমিশনের অধীনে ৭ জানুয়ারির দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগসহ ২৮টি দল অংশ নেয়। ভোট বর্জন করে বিএনপিসহ সমমনা ১৬টি দল। ভোটের আগে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের লক্ষ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আলাপ-আলোচনার তাগিদ এলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

বৈঠক শেষে সিইসি জানান, ইসির আমন্ত্রণেই টিআইবির সঙ্গে এই বৈঠক হয়েছে। তাদের পক্ষ থেকে হলফনামার তথ্য দ্রুত ওয়েবসাইটে তুলে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে উল্লেখ করে সিইসি বলেন, হলফনামার তথ্য ইসি ওয়েবসাইটে তুলে দিচ্ছে। যে কেউ এখান থেকে তথ্য নিতে পারেন, দুদক নিতে পারে, ইসি সহযোগিতা করবে। তবে হলফনামায় দেওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে পদক্ষেপ নেওয়ার দায়িত্ব বা কর্তৃত্ব ইসিকে দেওয়া হয়নি।

চলমান রাজনৈতিক বৈরিতায় এগিয়ে যাওয়া কঠিন : সিইসি

আপডেট সময় ১১:৩৩:৩১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪

দেশে প্রকট রাজনৈতিক বৈরিতা বিরাজমান– এ মন্তব্য করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, এই পরিস্থিতিতে সামনে এগিয়ে যাওয়া কঠিন। সব ধরনের তিক্ততা পরিহার করে রাজনৈতিক দলগুলোকে আলোচনার টেবিলে বসতে ফের তাগিদ দেন তিনি।
গতকাল রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন সিইসি। এর আগে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামানের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠক করে।
জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রচলিত আসনভিত্তিক প্রতিনিধির পরিবর্তে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব, নির্বাচনী হলফনামার তথ্য প্রকাশ, যাচাই-বাছাই করা এবং মিথ্যা তথ্য দিলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে ইসির সঙ্গে আলোচনা করে প্রতিনিধি দল।

বৈঠক শেষে নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে বিরোধের স্থায়ী সমাধানের জন্য চলমান রাজনৈতিক সংকট থেকে উত্তরণের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন সিইসি। তিনি জানান, রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে এখনও কোনো আলোচনার সম্ভাবনা তিনি দেখছেন না। তাদের মধ্যে বৈরিতা অত্যন্ত প্রকট। এ পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটাতে সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের ভূমিকা পালন করতে হবে বলে মনে করেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরেই নির্বাচন ব্যবস্থা নিয়ে পুরোপুরি দুই মেরুতে অবস্থান করছে দুই প্রধান রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। নবম সংসদে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর আদালত তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থাকে অসাংবিধানিক ঘোষণা করেন। এরপর তিনটি সংসদ নির্বাচন হলেও রাজনৈতিক সংকট আগের মতোই রয়ে গেছে। সর্বশেষ হাবিবুল আউয়াল কমিশনের অধীনে ৭ জানুয়ারির দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগসহ ২৮টি দল অংশ নেয়। ভোট বর্জন করে বিএনপিসহ সমমনা ১৬টি দল। ভোটের আগে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের লক্ষ্যে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আলাপ-আলোচনার তাগিদ এলেও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।

বৈঠক শেষে সিইসি জানান, ইসির আমন্ত্রণেই টিআইবির সঙ্গে এই বৈঠক হয়েছে। তাদের পক্ষ থেকে হলফনামার তথ্য দ্রুত ওয়েবসাইটে তুলে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে উল্লেখ করে সিইসি বলেন, হলফনামার তথ্য ইসি ওয়েবসাইটে তুলে দিচ্ছে। যে কেউ এখান থেকে তথ্য নিতে পারেন, দুদক নিতে পারে, ইসি সহযোগিতা করবে। তবে হলফনামায় দেওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে পদক্ষেপ নেওয়ার দায়িত্ব বা কর্তৃত্ব ইসিকে দেওয়া হয়নি।