ঢাকা ০২:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যখন যে কাজ করি তখন সেটার ভেতর ডুবে থাকি : তাসনিয়া ফারিণ

  • ডিপি ডেস্ক
  • আপডেট সময় ১১:৩২:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
  • 7

দেশের প্রেক্ষাগৃহে আগামীকাল শুক্রবার (২৪ মে) মুক্তির পাবে তাসনিয়া ফারিণ অভিনীত সিনেমা ‘ফাতিমা’। এতে ফাতিমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এরই মধ্যে তিনটি আন্তর্জাতিক উৎসবে প্রশংসা কুড়িয়েছে ছবিটি। এমনকি ইরানের ৪২তম ফজর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘ফাতিমা’ সিনেমার জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন ফারিণ। সেখানে সবার সঙ্গে বসে নিজের সিনেমাটি উপভোগ করেছেন এ অভিনেত্রী। নিজের সিনেমা দেখার অনুভূতি প্রকাশ করে কালবেলাকে ফারিণ বলেন, ‘আমার কাছে ভালো লেগেছে, কারণ সবাই মনোযোগ দিয়ে দেখেছে সিনেমাটি।’

প্রায় আট বছর আগে শুরু হয়েছিল ফাতিমা সিনেমাটির কাজ। মাঝখানে বন্ধ ছিল বেশ কিছুদিন। অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে ছবিটির নির্মাণ শেষ করেন নির্মাতা ধ্রুব হাসান। মাঝখানে বিরতি পড়ায় এ সিনেমায় অভিনয়ের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে কিছুটা বেগ পোহাতে হয়েছে ফারিণকে। কেননা আট বছর আগে তিনি এখনকার মতো অভিনয়ে দক্ষ ছিলেন না বলে জানিয়েছেন।

ফারিণ বলেন, ‘২০১৭ সালে আমি শুট করেছিলাম, তারপর জিনিসটা স্টপ হয়ে যায়। এতে পুরো জিনিসটাই মাথা থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ২০২৩ সালে আবার অন্যভাবে গল্পটা সাজানো হয়। অতীতের সঙ্গে মিল রেখে কিছু সিক্যুয়েন্স ছিল। ২০১৭ সালের লুকে ২০২৩ সালে শুট করতে হয়েছে আমাকে। এটাই ছিল চ্যালেঞ্জ।’

অতীত আঁকড়ে ধরতে পছন্দ করেন না ফারিণ। তাই বললেন, ‘আমার কাছে সাকসেসের সংজ্ঞাটা ভিন্ন। আমি কাজের প্রক্রিয়াটা উপভোগ করি। যখন যে কাজ করি তখন সেটার ভেতর ডুবে থাকি।’ তিনি আরও বলেন, ‘একটি কাজ যখন দর্শকের ভালো লাগে, তখন অবশ্যই আমার ভালো লাগে। কিন্তু সেটা আমি বেশিক্ষণ মাথায় রাখি না। আমি মনে করি, এটিই আমার শেষ কাজ। এরপর মানুষ আমাকে প্রথম কাজ থেকে চিনবে। আগের কাজ মানুষ মনে রাখবে না। সবসময় আমার কাছে মনে হয় যে, প্রাপ্তির আনন্দটা কম উপভোগ করি, কিন্তু প্রত্যাশাটা সবসময় বেশি থাকে।’

যখন যে কাজ করি তখন সেটার ভেতর ডুবে থাকি : তাসনিয়া ফারিণ

আপডেট সময় ১১:৩২:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

দেশের প্রেক্ষাগৃহে আগামীকাল শুক্রবার (২৪ মে) মুক্তির পাবে তাসনিয়া ফারিণ অভিনীত সিনেমা ‘ফাতিমা’। এতে ফাতিমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এরই মধ্যে তিনটি আন্তর্জাতিক উৎসবে প্রশংসা কুড়িয়েছে ছবিটি। এমনকি ইরানের ৪২তম ফজর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘ফাতিমা’ সিনেমার জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন ফারিণ। সেখানে সবার সঙ্গে বসে নিজের সিনেমাটি উপভোগ করেছেন এ অভিনেত্রী। নিজের সিনেমা দেখার অনুভূতি প্রকাশ করে কালবেলাকে ফারিণ বলেন, ‘আমার কাছে ভালো লেগেছে, কারণ সবাই মনোযোগ দিয়ে দেখেছে সিনেমাটি।’

প্রায় আট বছর আগে শুরু হয়েছিল ফাতিমা সিনেমাটির কাজ। মাঝখানে বন্ধ ছিল বেশ কিছুদিন। অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে ছবিটির নির্মাণ শেষ করেন নির্মাতা ধ্রুব হাসান। মাঝখানে বিরতি পড়ায় এ সিনেমায় অভিনয়ের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে কিছুটা বেগ পোহাতে হয়েছে ফারিণকে। কেননা আট বছর আগে তিনি এখনকার মতো অভিনয়ে দক্ষ ছিলেন না বলে জানিয়েছেন।

ফারিণ বলেন, ‘২০১৭ সালে আমি শুট করেছিলাম, তারপর জিনিসটা স্টপ হয়ে যায়। এতে পুরো জিনিসটাই মাথা থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ২০২৩ সালে আবার অন্যভাবে গল্পটা সাজানো হয়। অতীতের সঙ্গে মিল রেখে কিছু সিক্যুয়েন্স ছিল। ২০১৭ সালের লুকে ২০২৩ সালে শুট করতে হয়েছে আমাকে। এটাই ছিল চ্যালেঞ্জ।’

অতীত আঁকড়ে ধরতে পছন্দ করেন না ফারিণ। তাই বললেন, ‘আমার কাছে সাকসেসের সংজ্ঞাটা ভিন্ন। আমি কাজের প্রক্রিয়াটা উপভোগ করি। যখন যে কাজ করি তখন সেটার ভেতর ডুবে থাকি।’ তিনি আরও বলেন, ‘একটি কাজ যখন দর্শকের ভালো লাগে, তখন অবশ্যই আমার ভালো লাগে। কিন্তু সেটা আমি বেশিক্ষণ মাথায় রাখি না। আমি মনে করি, এটিই আমার শেষ কাজ। এরপর মানুষ আমাকে প্রথম কাজ থেকে চিনবে। আগের কাজ মানুষ মনে রাখবে না। সবসময় আমার কাছে মনে হয় যে, প্রাপ্তির আনন্দটা কম উপভোগ করি, কিন্তু প্রত্যাশাটা সবসময় বেশি থাকে।’