ঢাকা ০৩:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফিট থাকতে বিটের জুস

যত দিন যাচ্ছে নানা ধরনের অসুখ বিসুখ বেড়ে চলেছে। সুস্থ থাকতে সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং জীবনযাপন পদ্ধতির বিকল্প নেই। এই সময় এমন কিছু খাবার খাদ্যতালিকায় রাখা দরকার যা অসুখ বিসুখ দূরে রাখতে সাহায্য করে। সেই কাজে সাহায্য করে বিটের জুস। নিয়মিত বিটের রস পান করলে নানা ধরনের সমস্যা থেকে রক্ষা পাবেন। 

বিটের রসে পর্যাপ্ত পরিমাণে নাইট্রিক অক্সাইড রয়েছে। যা রক্তনালিগুলির মুখ খুলে দেয় এবং রক্তচাপের মাত্রা কমায। এর ফলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। 

গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়ম করে প্রতিদিন বিটের রস খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এর ফলে শরীরও সুস্থ থাকে।  

বিটে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পাশাপাশি অ্যান্টিইনফ্ল্যামেটরি গুণও রয়েছে। এ কারণে শরীরের যে কোন ধরনের প্রদাহ কমাতে প্রতিদিন বিটের রস পান করতে পারেন। 

বিটের মধ্যে থাকা আয়রন, ফোলেট এবং ভিটামিন সি চুল ভালো রাখতে গুরুত্বপূর্ণ রাখে। নিয়মিত বিটের রস পানে চুল পড়া কমে। সেই সঙ্গে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। 

বিটের রস ভিটামিন এ, ভিটামিন বি৬, আয়রনের ভাণ্ডার। এসব ভিটামিন ও খনিজ প্রদাহ এবং অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কাটাতে খুবই কার্যকর। শুধু তাই নয়, বিশেষজ্ঞদের মতে, এসব উপাদানের গুণে লিভার থেকে খুব সহজেই টক্সিন বের করে দেওয়া সম্ভব। 

যারা রক্তশূন্যতায় ভূগছেন তারা নিয়মিত বিটের জুস পান করুন। এই পানীয়তে রয়েছে আয়রনের ভাণ্ডার। আর এই উপাদান রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়ানোর ক্ষমতা রাখে। তাই অ্যানিমিয়া প্রতিরোধ করতে চাইলে নিয়মিত বিটরুটের রস খান। 

ফিট থাকতে বিটের জুস

আপডেট সময় ১২:০০:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪

যত দিন যাচ্ছে নানা ধরনের অসুখ বিসুখ বেড়ে চলেছে। সুস্থ থাকতে সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং জীবনযাপন পদ্ধতির বিকল্প নেই। এই সময় এমন কিছু খাবার খাদ্যতালিকায় রাখা দরকার যা অসুখ বিসুখ দূরে রাখতে সাহায্য করে। সেই কাজে সাহায্য করে বিটের জুস। নিয়মিত বিটের রস পান করলে নানা ধরনের সমস্যা থেকে রক্ষা পাবেন। 

বিটের রসে পর্যাপ্ত পরিমাণে নাইট্রিক অক্সাইড রয়েছে। যা রক্তনালিগুলির মুখ খুলে দেয় এবং রক্তচাপের মাত্রা কমায। এর ফলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। 

গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়ম করে প্রতিদিন বিটের রস খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এর ফলে শরীরও সুস্থ থাকে।  

বিটে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পাশাপাশি অ্যান্টিইনফ্ল্যামেটরি গুণও রয়েছে। এ কারণে শরীরের যে কোন ধরনের প্রদাহ কমাতে প্রতিদিন বিটের রস পান করতে পারেন। 

বিটের মধ্যে থাকা আয়রন, ফোলেট এবং ভিটামিন সি চুল ভালো রাখতে গুরুত্বপূর্ণ রাখে। নিয়মিত বিটের রস পানে চুল পড়া কমে। সেই সঙ্গে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। 

বিটের রস ভিটামিন এ, ভিটামিন বি৬, আয়রনের ভাণ্ডার। এসব ভিটামিন ও খনিজ প্রদাহ এবং অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কাটাতে খুবই কার্যকর। শুধু তাই নয়, বিশেষজ্ঞদের মতে, এসব উপাদানের গুণে লিভার থেকে খুব সহজেই টক্সিন বের করে দেওয়া সম্ভব। 

যারা রক্তশূন্যতায় ভূগছেন তারা নিয়মিত বিটের জুস পান করুন। এই পানীয়তে রয়েছে আয়রনের ভাণ্ডার। আর এই উপাদান রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়ানোর ক্ষমতা রাখে। তাই অ্যানিমিয়া প্রতিরোধ করতে চাইলে নিয়মিত বিটরুটের রস খান।