ঢাকা ০৩:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নোয়াব সম্মাননা পেল ৬ সংবাদপত্র

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (নোয়াব) সম্মাননা পেল দেশের ঐতিহ্যবাহী ৬ সংবাদপত্র। ৫০ বছরের বেশি সময় অতিক্রম করে আসা চারটি সদস্য সংবাদপত্র দৈনিক সংবাদ, দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক আজাদী, দৈনিক পূর্বাঞ্চল আর ২৫ বছর পেরোনো দৈনিক মানবজমিন ও প্রথম আলোকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশান ক্লাবে বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। নোয়াবের সভাপতি এ. কে. আজাদ এমপির সভাপতিত্বে ও সংগঠনের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দেওয়ান হানিফ মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত। এ সময় সংবাদপত্র মালিকরা বলেন, দেশে স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করা যাচ্ছে না। 
 
স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সংবাদপত্র শিল্পের বিকাশে এর মালিকদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে। জনমত গঠন করা, সামাজিক দায়িত্ব পালন করার মতো মৌলিক দায়িত্ব থেকে সংবাদপত্র যেন দূরে সরে না যায়। 

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্পিকার এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দু’জন সম্পাদক অভিযোগ করলেন, স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করা যচ্ছে না। এটাই প্রমাণ করে আপনারা মতপ্রকাশ করতে পারেন। গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করার কোনো ইচ্ছা সরকারের নেই। তিনি আরও বলেন, আপনারা স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করুন। মুক্ত গণমাধ্যম আমাদের জন্য খুবই দরকার। একই সঙ্গে দরকার অপতথ্য বন্ধ রাখা। 

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, সংবাদের পরিচালনা বোর্ডের সদস্য নিহাত কবির, আজাদীর নির্বাহী সম্পাদক নিহাত মালেক।

নোয়াব সম্মাননা পেল ৬ সংবাদপত্র

আপডেট সময় ১১:২৬:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জুন ২০২৪

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজপেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (নোয়াব) সম্মাননা পেল দেশের ঐতিহ্যবাহী ৬ সংবাদপত্র। ৫০ বছরের বেশি সময় অতিক্রম করে আসা চারটি সদস্য সংবাদপত্র দৈনিক সংবাদ, দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক আজাদী, দৈনিক পূর্বাঞ্চল আর ২৫ বছর পেরোনো দৈনিক মানবজমিন ও প্রথম আলোকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশান ক্লাবে বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। নোয়াবের সভাপতি এ. কে. আজাদ এমপির সভাপতিত্বে ও সংগঠনের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দেওয়ান হানিফ মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত। এ সময় সংবাদপত্র মালিকরা বলেন, দেশে স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করা যাচ্ছে না। 
 
স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সংবাদপত্র শিল্পের বিকাশে এর মালিকদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে। জনমত গঠন করা, সামাজিক দায়িত্ব পালন করার মতো মৌলিক দায়িত্ব থেকে সংবাদপত্র যেন দূরে সরে না যায়। 

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্পিকার এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দু’জন সম্পাদক অভিযোগ করলেন, স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করা যচ্ছে না। এটাই প্রমাণ করে আপনারা মতপ্রকাশ করতে পারেন। গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করার কোনো ইচ্ছা সরকারের নেই। তিনি আরও বলেন, আপনারা স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করুন। মুক্ত গণমাধ্যম আমাদের জন্য খুবই দরকার। একই সঙ্গে দরকার অপতথ্য বন্ধ রাখা। 

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, সংবাদের পরিচালনা বোর্ডের সদস্য নিহাত কবির, আজাদীর নির্বাহী সম্পাদক নিহাত মালেক।