ঢাকা ০৯:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: পিএসজির বিদায়, ফাইনালে ডর্টমুন্ড 

  • ডিপি ডেস্ক
  • আপডেট সময় ১১:২৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ মে ২০২৪
  • 5

প্রতিপক্ষ শক্তিশালী হলে তাদেরই মাঠে জয়ের কঠিন পথটা কার্লো আনচেলত্তি  দেখিয়ে দিয়েছেন। ম্যানচেস্টার সিটির মাঠে সাদা দেয়াল তুলেছিলেন তিনি। এবার প্যারিসের পার্ক দেস প্রিন্সেসে ইয়োলো ওয়াল তুলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পা রেখেছে জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। 

মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে প্যারিসে ১-০ গোলে জিতেছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। প্রথমার্ধে একের পর এক আক্রমণ তুলে গোল করতে পারেনি পিএসজি। দ্বিতীয়ার্ধে সুযোগ পেয়ে গোল করে ডর্টমুন্ড। ম্যাচের ৫০ মিনিটে দীর্ঘদেহি জার্মান ডিফেন্ডার ম্যাট হামেলস লা প্যারিসিয়ানদের জালে বল পাঠিয়ে দেন। 

এর আগে প্রথম লেগে ঘরের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছিল ডর্টমুন্ড। ওই ম্যাচেও তারা খুব আক্রমণ করেছিল তা নয়। লিড পেয়ে যাওয়ায় তারা রক্ষণ সামলে খেলে জয় নিয়ে প্রথম লেগ শেষ করেছিল। এ নিয়ে এক যুগ পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পা রাখল লিগ টেবিলে পাঁচে থাকা ডর্টমুন্ড। এর আগে ২০১২-১৩ মৌসুমে ফাইনালে উঠেছিল তারা। 

বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের এটি তৃতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল। ১৯৯৬-৯৭ মৌসুমে প্রথমবার ফাইনালে উঠে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। ২০১২-১৩ মৌসুমে ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে হেরেছিল তারা। এবারও ফাইনালে বায়ার্নের মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা আছে দলটির। আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বুধবার রাতে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে বায়ার্ন মাঠে নামবে। প্রথম লেগ ২-২ গোলের সমতায় আছে।  

ডিপজলের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই চলচ্চিত্র সমিতিতে

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: পিএসজির বিদায়, ফাইনালে ডর্টমুন্ড 

আপডেট সময় ১১:২৮:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ মে ২০২৪

প্রতিপক্ষ শক্তিশালী হলে তাদেরই মাঠে জয়ের কঠিন পথটা কার্লো আনচেলত্তি  দেখিয়ে দিয়েছেন। ম্যানচেস্টার সিটির মাঠে সাদা দেয়াল তুলেছিলেন তিনি। এবার প্যারিসের পার্ক দেস প্রিন্সেসে ইয়োলো ওয়াল তুলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পা রেখেছে জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। 

মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে প্যারিসে ১-০ গোলে জিতেছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। প্রথমার্ধে একের পর এক আক্রমণ তুলে গোল করতে পারেনি পিএসজি। দ্বিতীয়ার্ধে সুযোগ পেয়ে গোল করে ডর্টমুন্ড। ম্যাচের ৫০ মিনিটে দীর্ঘদেহি জার্মান ডিফেন্ডার ম্যাট হামেলস লা প্যারিসিয়ানদের জালে বল পাঠিয়ে দেন। 

এর আগে প্রথম লেগে ঘরের মাঠে ১-০ গোলে জিতেছিল ডর্টমুন্ড। ওই ম্যাচেও তারা খুব আক্রমণ করেছিল তা নয়। লিড পেয়ে যাওয়ায় তারা রক্ষণ সামলে খেলে জয় নিয়ে প্রথম লেগ শেষ করেছিল। এ নিয়ে এক যুগ পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পা রাখল লিগ টেবিলে পাঁচে থাকা ডর্টমুন্ড। এর আগে ২০১২-১৩ মৌসুমে ফাইনালে উঠেছিল তারা। 

বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের এটি তৃতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল। ১৯৯৬-৯৭ মৌসুমে প্রথমবার ফাইনালে উঠে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। ২০১২-১৩ মৌসুমে ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে হেরেছিল তারা। এবারও ফাইনালে বায়ার্নের মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা আছে দলটির। আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বুধবার রাতে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে বায়ার্ন মাঠে নামবে। প্রথম লেগ ২-২ গোলের সমতায় আছে।