ঢাকা ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আমেরিকায় যে ১০ চাকরিতে বেতন সর্বোচ্চ

  • ডিপি ডেস্ক
  • আপডেট সময় ১১:৩০:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • 9

আমেরিকায় সর্বোচ্চ বেতনের দিক দিয়ে সেরা ৩০টি চাকরির তালিকা করেছে বিশ্বখ্যাত মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস। এই তালিকায় দেখা গেছে, সর্বোচ্চ বেতনের চাকরির মধ্যে অধিকাংশই স্বাস্থ্যসেবা খাত ও প্রযুক্তি খাতের চাকরি। তালিকায় থাকা শীর্ষ ১১টি চাকরিই স্বাস্থ্যসেবা খাতের।

২০২১ সালে দেশটিতে প্রযুক্তি পেশাজীবীদের গড় বেতন রেকর্ডসংখ্যক বেড়েছে। এই পেশাজীবীদের গড় বেতন ১০ লাখ ৪ হাজার ৫৬৬ ডলার। এ সত্ত্বেও অধিকাংশ প্রযুক্তিকর্মী মনে করেন, তাঁরা কম বেতন পাচ্ছেন। ওয়েব ডেভেলপারদের বেতন সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। তাঁদের বেতন ২১ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়েছে। আর আইটি ম্যানেজমেন্ট পদের সর্বোচ্চ গড় বেতন ১৫ লাখ ১ হাজার ৯৮৩ ডলার।

এই খাতে সবচেয়ে বেশি বেতন বেড়েছে ডেটাবেজ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর, টেকনিক্যাল সাপোর্ট ইঞ্জিনিয়ার ও ডেটা অ্যানালিস্ট পদের। ধারণা করা হচ্ছে, এসব পদের বেতন আরও বাড়বে।

এদিকে কোভিড ১৯ মহামারির কারণে যুক্তরাষ্ট্রে স্বাস্থ্যসেবা খাতের চাকরিগুলোর বেতনও কয়েক গুণ বেড়েছে। গত জানুয়ারিতেই স্বাস্থ্যসেবা খাতে ৭০ হাজার নতুন চাকরি যোগ হয়েছে। যা দেশটিতে মোট কর্মশক্তির প্রায় ২০ শতাংশ। বর্তমানে এই খাতের চাকরিই যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেতনের চাকরি।

স্যালারি ডটকমের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে জেনারেল সার্জনের গড় বেতন ৪ লাখ ৩২ হাজার ৪০০ ডলার। এটাই এই খাতের সর্বোচ্চ বেতনের চাকরি। একজন অ্যানেসথিয়োলজিস্টের গড় বেতন ৪ লাখ ২৬ হাজার ৮০০ ডলার ও মেডিকেল ডিরেক্টরের গড় বেতন ৩ লাখ ২২ হাজার ৪৮৪ ডলার।

ফোর্বসের তালিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেতনের ১০ চাকরির হলো—

  • ১. নিউরোসার্জন
    যুক্তরাষ্ট্রে নিউরোসার্জনদের সবচেয়ে বেশি বেতন দেওয়া হয়। কারণ, তাঁরা অত্যন্ত জটিল কাজ করেন। নির্ভুল কাজের জন্য তাঁদের অনেক দক্ষতার প্রয়োজন হয়। জিপরিক্রুটারের তথ্য অনুযায়ী, নিউরোসার্জনদের সবচেয়ে বেশি বেতন দেওয়া হয় যুক্তরাষ্ট্রের ওরেগন, আলাস্কা ও নর্থ ডাকোটা অঙ্গরাজ্যে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ৭ কোটি ৯৩ লাখ ৬ হাজার ১২২ টাকা (৬ লাখ ৭৭ হাজার ৩০১ ডলার)।
  • ২. অফথালমোলজিস্ট
    যুক্তরাষ্ট্রে বয়স্ক মানুষদের ছানি, গ্লুকোমাসহ চোখের নানা ধরনের সমস্যা বেশি হয়। এ কারণে দেশটিতে চক্ষু বিশেষজ্ঞদের চাহিদা বেড়ে গেছে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ৩ কোটি ১৩ লাখ ১৬ হাজার ৯৫ টাকা (২ লাখ ৬৭ হাজার ৪৫০ ডলার)।
  • ৩. প্রধান নির্বাহী
    যুক্তরাষ্ট্রে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের সিইওর বেতন অনেক বেশি। এই পদে অনেকে বছরে ২০ কোটি ডলারের বেশি আয় করেন। ২০২২ সালে দেশটির বড় রিয়েল এস্টেট কোম্পানি ব্ল্যাকস্টোন ইনকের সিইও স্টিফেন শোয়ার্জম্যান ২৫ কোটি ৩০ লাখ ডলার আয় করেছেন। আর গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই আয় করেছেন ২২ কোটি ৬০ লাখ ডলার। বর্তমানে এই পদের গড় বেতন প্রায় ২ কোটি ৮৮ লাখ ৫৬ হাজার ৪ টাকা (২ লাখ ৪৬ হাজার ৪৪০ ডলার)।
  • ৪. কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস ম্যানেজার
    ২০২২ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত এই ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান ১৫ শতাংশ বেড়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে এই ক্ষেত্রে ৫ লাখ ৫৭ হাজার ৪০০টি পদের সঙ্গে আরও ৮৬ হাজার নতুন পদ যুক্ত হবে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ২ কোটি ৩ লাখ ৩৫ হাজার ২৬৩ টাকা (১ লাখ ৭৩ হাজার ৬৭০ ডলার)।
  • ৫. এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ম্যানেজার
    এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ম্যানেজমেন্টে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ফ্রেমওয়ার্ক, ডেটা মডেলিং, সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন, ক্লাউড কম্পিউটিং, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট পদ্ধতিসহ আরও অনেক দক্ষতার প্রয়োজন। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৯৭ লাখ ৬০ হাজার ৫৭৮ টাকা (১ লাখ ৬৮ হাজার ৭৬২ ডলার)।
  • ৬. আইনজীবী
    যুক্তরাষ্ট্রে গত বছর আইনজীবীদের গড় বার্ষিক বেতন ছিল ১ লাখ ৪৫ হাজার ৭৬০ ডলার বা প্রতি ঘণ্টায় ৭০ দশমিক ০৮ ডলার। দেশটিতে আইনজীবী হওয়ার জন্য প্রাথমিক প্রয়োজনীয়তাগুলোর মধ্যে একটি হলো ডক্টরাল বা পেশাদার ডিগ্রি। ২০২২ সালের হিসাবে, দেশটিতে ৮ লাখ ২৬ হাজার ৩০০ আইনজীবীর পদ ছিল। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বেতনের চাকরির মধ্যে এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৯১ লাখ ৭৬ হাজার ৫৮ টাকা (১ লাখ ৬৩ হাজার ৭৭০ ডলার)।
  • ৭. মেশিন লার্নিং ইঞ্জিনিয়ার
    যুক্তরাষ্ট্রে মেশিন লার্নিংয়ের (এমএল) চাহিদা আগের মতো বাড়ছে না। এরপরও ২০২৭ সালের মধ্যে ১০ লাখ এমএল বিশেষজ্ঞের প্রয়োজন হবে। আগামী ৫ বছরে এই পদে ৪০ শতাংশ কর্মসংস্থান বেড়ে যাবে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৮৮ লাখ ৯৬ হাজার ৪৪৪ টাকা (১ লাখ ৬১ হাজার ৩৮২ ডলার)।
  • ৮. কোয়ানটিটেটিভ অ্যানালিস্ট
    এই পদের জন্য শক্তিশালী গাণিতিক, পরিসংখ্যানগত ও প্রোগ্রামিং দক্ষতা প্রয়োজন। কর্মজীবনে উন্নতির জন্য ডেটা বিশ্লেষণ, আর্থিক মডেলিং ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায়ও দক্ষতা অর্জন করতে হয়। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৭৯ লাখ ৭৮ হাজার ৯৬ টাকা (১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৩৯ ডলার)।
  • ৯. সিনিয়র রিয়েল এস্টেট ম্যানেজার
    মার্কিন শ্রম পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য অনুসারে, ২০২২ সালে দেশটিতে রিয়েল এস্টেট ম্যানেজারের জন্য ৪ লাখ ২৯ হাজার ৬০০টি পদ ছিল। বর্তমানে এটি দেশটির সর্বোচ্চ বেতনপ্রাপ্ত পেশাগুলোর মধ্যে একটি। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৬৪ লাখ ৪৮ হাজার ৬৪৮ টাকা (১ লাখ ৪০ হাজার ৪৭৭ ডলার)।
  • ১০. এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার
    অতিরিক্ত ডিগ্রি ছাড়াই সর্বোচ্চ বেতনের চাকরি হলো এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার। এই চাকরির জন্য শুধু একটি সহযোগী ডিগ্রির প্রয়োজন হয় এবং দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৫৩ লাখ ২০ হাজার ২৩৮ টাকা (১ লাখ ৩০ হাজার ৮৪০ ডলার)।

আমেরিকায় যে ১০ চাকরিতে বেতন সর্বোচ্চ

আপডেট সময় ১১:৩০:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

আমেরিকায় সর্বোচ্চ বেতনের দিক দিয়ে সেরা ৩০টি চাকরির তালিকা করেছে বিশ্বখ্যাত মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস। এই তালিকায় দেখা গেছে, সর্বোচ্চ বেতনের চাকরির মধ্যে অধিকাংশই স্বাস্থ্যসেবা খাত ও প্রযুক্তি খাতের চাকরি। তালিকায় থাকা শীর্ষ ১১টি চাকরিই স্বাস্থ্যসেবা খাতের।

২০২১ সালে দেশটিতে প্রযুক্তি পেশাজীবীদের গড় বেতন রেকর্ডসংখ্যক বেড়েছে। এই পেশাজীবীদের গড় বেতন ১০ লাখ ৪ হাজার ৫৬৬ ডলার। এ সত্ত্বেও অধিকাংশ প্রযুক্তিকর্মী মনে করেন, তাঁরা কম বেতন পাচ্ছেন। ওয়েব ডেভেলপারদের বেতন সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। তাঁদের বেতন ২১ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়েছে। আর আইটি ম্যানেজমেন্ট পদের সর্বোচ্চ গড় বেতন ১৫ লাখ ১ হাজার ৯৮৩ ডলার।

এই খাতে সবচেয়ে বেশি বেতন বেড়েছে ডেটাবেজ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর, টেকনিক্যাল সাপোর্ট ইঞ্জিনিয়ার ও ডেটা অ্যানালিস্ট পদের। ধারণা করা হচ্ছে, এসব পদের বেতন আরও বাড়বে।

এদিকে কোভিড ১৯ মহামারির কারণে যুক্তরাষ্ট্রে স্বাস্থ্যসেবা খাতের চাকরিগুলোর বেতনও কয়েক গুণ বেড়েছে। গত জানুয়ারিতেই স্বাস্থ্যসেবা খাতে ৭০ হাজার নতুন চাকরি যোগ হয়েছে। যা দেশটিতে মোট কর্মশক্তির প্রায় ২০ শতাংশ। বর্তমানে এই খাতের চাকরিই যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেতনের চাকরি।

স্যালারি ডটকমের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে জেনারেল সার্জনের গড় বেতন ৪ লাখ ৩২ হাজার ৪০০ ডলার। এটাই এই খাতের সর্বোচ্চ বেতনের চাকরি। একজন অ্যানেসথিয়োলজিস্টের গড় বেতন ৪ লাখ ২৬ হাজার ৮০০ ডলার ও মেডিকেল ডিরেক্টরের গড় বেতন ৩ লাখ ২২ হাজার ৪৮৪ ডলার।

ফোর্বসের তালিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেতনের ১০ চাকরির হলো—

  • ১. নিউরোসার্জন
    যুক্তরাষ্ট্রে নিউরোসার্জনদের সবচেয়ে বেশি বেতন দেওয়া হয়। কারণ, তাঁরা অত্যন্ত জটিল কাজ করেন। নির্ভুল কাজের জন্য তাঁদের অনেক দক্ষতার প্রয়োজন হয়। জিপরিক্রুটারের তথ্য অনুযায়ী, নিউরোসার্জনদের সবচেয়ে বেশি বেতন দেওয়া হয় যুক্তরাষ্ট্রের ওরেগন, আলাস্কা ও নর্থ ডাকোটা অঙ্গরাজ্যে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ৭ কোটি ৯৩ লাখ ৬ হাজার ১২২ টাকা (৬ লাখ ৭৭ হাজার ৩০১ ডলার)।
  • ২. অফথালমোলজিস্ট
    যুক্তরাষ্ট্রে বয়স্ক মানুষদের ছানি, গ্লুকোমাসহ চোখের নানা ধরনের সমস্যা বেশি হয়। এ কারণে দেশটিতে চক্ষু বিশেষজ্ঞদের চাহিদা বেড়ে গেছে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ৩ কোটি ১৩ লাখ ১৬ হাজার ৯৫ টাকা (২ লাখ ৬৭ হাজার ৪৫০ ডলার)।
  • ৩. প্রধান নির্বাহী
    যুক্তরাষ্ট্রে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের সিইওর বেতন অনেক বেশি। এই পদে অনেকে বছরে ২০ কোটি ডলারের বেশি আয় করেন। ২০২২ সালে দেশটির বড় রিয়েল এস্টেট কোম্পানি ব্ল্যাকস্টোন ইনকের সিইও স্টিফেন শোয়ার্জম্যান ২৫ কোটি ৩০ লাখ ডলার আয় করেছেন। আর গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই আয় করেছেন ২২ কোটি ৬০ লাখ ডলার। বর্তমানে এই পদের গড় বেতন প্রায় ২ কোটি ৮৮ লাখ ৫৬ হাজার ৪ টাকা (২ লাখ ৪৬ হাজার ৪৪০ ডলার)।
  • ৪. কম্পিউটার অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস ম্যানেজার
    ২০২২ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত এই ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান ১৫ শতাংশ বেড়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে এই ক্ষেত্রে ৫ লাখ ৫৭ হাজার ৪০০টি পদের সঙ্গে আরও ৮৬ হাজার নতুন পদ যুক্ত হবে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ২ কোটি ৩ লাখ ৩৫ হাজার ২৬৩ টাকা (১ লাখ ৭৩ হাজার ৬৭০ ডলার)।
  • ৫. এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ম্যানেজার
    এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ম্যানেজমেন্টে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য এন্টারপ্রাইজ আর্কিটেকচার ফ্রেমওয়ার্ক, ডেটা মডেলিং, সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন, ক্লাউড কম্পিউটিং, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট পদ্ধতিসহ আরও অনেক দক্ষতার প্রয়োজন। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৯৭ লাখ ৬০ হাজার ৫৭৮ টাকা (১ লাখ ৬৮ হাজার ৭৬২ ডলার)।
  • ৬. আইনজীবী
    যুক্তরাষ্ট্রে গত বছর আইনজীবীদের গড় বার্ষিক বেতন ছিল ১ লাখ ৪৫ হাজার ৭৬০ ডলার বা প্রতি ঘণ্টায় ৭০ দশমিক ০৮ ডলার। দেশটিতে আইনজীবী হওয়ার জন্য প্রাথমিক প্রয়োজনীয়তাগুলোর মধ্যে একটি হলো ডক্টরাল বা পেশাদার ডিগ্রি। ২০২২ সালের হিসাবে, দেশটিতে ৮ লাখ ২৬ হাজার ৩০০ আইনজীবীর পদ ছিল। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বেতনের চাকরির মধ্যে এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৯১ লাখ ৭৬ হাজার ৫৮ টাকা (১ লাখ ৬৩ হাজার ৭৭০ ডলার)।
  • ৭. মেশিন লার্নিং ইঞ্জিনিয়ার
    যুক্তরাষ্ট্রে মেশিন লার্নিংয়ের (এমএল) চাহিদা আগের মতো বাড়ছে না। এরপরও ২০২৭ সালের মধ্যে ১০ লাখ এমএল বিশেষজ্ঞের প্রয়োজন হবে। আগামী ৫ বছরে এই পদে ৪০ শতাংশ কর্মসংস্থান বেড়ে যাবে। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৮৮ লাখ ৯৬ হাজার ৪৪৪ টাকা (১ লাখ ৬১ হাজার ৩৮২ ডলার)।
  • ৮. কোয়ানটিটেটিভ অ্যানালিস্ট
    এই পদের জন্য শক্তিশালী গাণিতিক, পরিসংখ্যানগত ও প্রোগ্রামিং দক্ষতা প্রয়োজন। কর্মজীবনে উন্নতির জন্য ডেটা বিশ্লেষণ, আর্থিক মডেলিং ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায়ও দক্ষতা অর্জন করতে হয়। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৭৯ লাখ ৭৮ হাজার ৯৬ টাকা (১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৩৯ ডলার)।
  • ৯. সিনিয়র রিয়েল এস্টেট ম্যানেজার
    মার্কিন শ্রম পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য অনুসারে, ২০২২ সালে দেশটিতে রিয়েল এস্টেট ম্যানেজারের জন্য ৪ লাখ ২৯ হাজার ৬০০টি পদ ছিল। বর্তমানে এটি দেশটির সর্বোচ্চ বেতনপ্রাপ্ত পেশাগুলোর মধ্যে একটি। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৬৪ লাখ ৪৮ হাজার ৬৪৮ টাকা (১ লাখ ৪০ হাজার ৪৭৭ ডলার)।
  • ১০. এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার
    অতিরিক্ত ডিগ্রি ছাড়াই সর্বোচ্চ বেতনের চাকরি হলো এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার। এই চাকরির জন্য শুধু একটি সহযোগী ডিগ্রির প্রয়োজন হয় এবং দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। এই পদের গড় বেতন প্রায় ১ কোটি ৫৩ লাখ ২০ হাজার ২৩৮ টাকা (১ লাখ ৩০ হাজার ৮৪০ ডলার)।